৩২০০০ মেয়েকে জোর করে ধর্মান্তর

0
119
৩২০০০ মেয়েকে জোর করে ধর্মান্তর
৩২০০০ মেয়েকে জোর করে ধর্মান্তর

ছবির নাম ‘দ্য কেরালা স্টোরি’। গত বছর থেকেই নানা বিতর্কেই জড়িয়েছে এই ছবি। আগামী ৫ মে মুক্তি পাচ্ছে বাঙালি পরিচালক সুদীপ্ত সেনের পরিচালনায় , ‘দ্য কেরালা স্টোরি’। ছবিটিতে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে, কেরালার ৩২০০০ মহিলার বিধ্বংসী গল্প। যাঁদের জোর করে ইসলাম ধর্মান্তরিত করা হয়েছিল।

৩২০০০ নারী, যারা এখনও কুখ্যাত উগ্রপন্থী দল আইএসআইএস-এ যোগদানের পর থেকে উগ্রপন্থী হিসেবে নিজেদের জীবন অতিবাহিত করেছেন।

এই ছবিতে মুখ্য ভূমিকায় অভিনয় করেছেন আদা শর্মা, সোনিয়া বালানি, যোগিতা বিহানি এবং সিদ্ধি আদানি। ইতিমধ্যেই এই ছবির উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছেন বামশাসিত কেরল।

কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন এক বিবৃতিতে স্পষ্ট জানিয়েছেন, ইচ্ছাকৃত ভাবে সাম্প্রদায়িক হিংসা ছড়িয়ে দিতে এই ধরনের ছবি তৈরি হয়েছে। রীতিমতো সঙ্ঘের দিকে আঙ্গুল তুলে বিজয়ন বলেছেন এটি একটি প্রচারসর্বস্ব (প্রোপাগান্ডা) ছবি। প্রায় ১০টির বেশি পরিবর্তন করে মুক্তির ছাড়পত্র পেয়েছে এই ছবি।

গত বছর এই সিনেমার টেলার মুক্তির সময় বেশ ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছিল কেরল জুড়ে। ফের একবার সেই ক্ষোভের আগুনে ঘি পড়ল। ডিরেক্টর সুদীপ্ত সেন ২০১৬ সালে উত্তর কেরলের ২১ জন মেয়ের গায়েব হওয়ার বাস্তব ঘটনা থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে এই সিনেমার গল্প সাজিয়েছেন।

যে ছবি ঘিরে উত্তাল দেশ এ বার ছবির প্রসঙ্গে মুখ খুললেন পরিচালক সুদীপ্ত সেন। তাঁর কথায়, ‘‘আমার ছবি মানুষের কষ্টের কথা বলবে, দীর্ঘ সময় ধরে রিসার্চ করে বানানো ছবিটা। আমি কষ্টার্জিত অর্থ দিয়ে এই ছবি বানিয়েছি। আমি কেন প্রচারমূলক ছবি করব?

এই ছবি তিন মেয়ের গল্প বলবে। যার মধ্যে একজন এখনও আফগানিস্তানের জেলে বন্দি। অন্যজন আত্মহত্যা করেছে, বিচারেরর অপেক্ষায় তাঁর মা-বাবা। অন্য আরেক মেয়ে এখন গা ঢাকা দিয়ে রয়েছে যাকে ক্রমাগত ধর্ষণ করা হয়েছে। ব্যাস আমার ছবির গল্প এতটুকুই।

এখানেই না থেমে সুদীপ্ত বলেন, ‘‘আমার এই ছবি সন্ত্রাসবাদের বিরোধী। আমি বুঝতে পারছি না সন্ত্রাসের বিরোধী হওয়া কি অপরাধ? আমি কখনই বলিনি কেরলে যে সব মেয়েদের ধর্মান্তর করা হচ্ছে তাঁরা আইসিসে এ যোগ দিচ্ছে। আমার প্রশ্ন মেয়ে গুলো একেবারে উবে যাচ্ছে কী ভাবে?’’

ছবির বিরুদ্ধে মুখ খুলেছেন কংগ্রেস সংসদ শশী তারুরও। তিনি লেখেন, “এ আপনাদের কেরল স্টোরি হতে পারে, আমাদের নয়। ”আগামী ৫ই মে হিন্দির পাশাপাশি তামিল, তেলুগু, মালয়ালম ভাষায় মুক্তি পাবে এই ছবি। মুখ্য ভূমিকায় অভিনয় করছেন আদা শর্মা, যোগিতা বিহানি, সোনিয়া বালানি এবং সিদ্ধি আদানিরা।