শহরের মধ্যে অর্ডারের পণ্য ৫ দিনে না পেলে ভোক্তা অধিকারে অভিযোগ

0
39

অগ্রিম অর্থ পরিশোধের ভিত্তিতে কোনো ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানে পণ্য অর্ডার দেওয়ার পর পাঁচ দিনের মধ্যে গ্রাহক পণ্য না পেলে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরে অভিযোগ করা যাবে। গ্রাহকের অভিযোগের ভিত্তিতে ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে অধিদপ্তর। প্রয়োজনে গ্রাহকদের অভিযোগে ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইটটি বন্ধ করে দেওয়া হতে পারে।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের কেন্দ্রীয় ডিজিটাল কমার্স সেল এক গণবিজ্ঞপ্তি জারি করে। বিজ্ঞপ্তিতে ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানের অগ্রিম অর্থ পরিশোধের ভিত্তিতে লেনদেনে শহরে সর্বোচ্চ পাঁচদিন এবং গ্রামে সর্বোচ্চ ১০ দিনের মধ্যে পণ্য ডেলিভারি দেওয়ার বাধ্যবাধকতার কথা বলা হয়েছে।

এ বিষয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ও বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থা (ডব্লিউটিও) সেলের মহাপরিচালক মো. হাফিজুর রহমান বলেন, পণ্য অর্ডার দেওয়ার পর শহরে পাঁচ দিন এবং গ্রামে দশ দিনের মধ্যে ডেলিভারি করতে হবে। তা না হলে গ্রাহকদের অভিযোগের ভিত্তিতে ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ই-ক্যাব সাধারণ সম্পাদক আব্দুল ওয়াহেদ তমাল বলেন, অর্ডার পণ্য ডেলিভারির বিষয়ে মনিটরিং ই-কমার্স সাইটগুলোই করবে। গ্রাহকের অভিযোগ থাকলে সেটি ভোক্তা অধিকারে জানাতে পারেন। পর্যবেক্ষণ করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের কেন্দ্রীয় ডিজিটাল কমার্স সেলের গণবিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, সম্প্রতি বিভিন্ন ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ভোক্তা সাধারণকে নানাভাবে প্রতারিত করার তথ্য পাওয়া যাচ্ছে। এ সমস্যা নিরসনে সরকার ইতোমধ্যে ডিজিটাল কমার্স পরিচালনা নির্দেশিকা-২০২১ জারি করেছে।

নির্দেশিকা অনুসারে, অগ্রিম অর্থ পরিশোধের ক্ষেত্রে ক্রেতা ও বিক্রেতা একই শহরে অবস্থান করলে ক্রয়াদেশ গ্রহণের পরবর্তী সর্বোচ্চ পাঁচ দিন এবং ক্রেতার অবস্থান ভিন্ন শহর বা গ্রামে হলে সর্বোচ্চ ১০ (দশ) দিনের মধ্যে পণ্য ডেলিভারি দেওয়ার বিধান রাখা হয়েছে।

এছাড়া গ্রাহকের সুরক্ষার স্বার্থে পণ্য ডেলিভারি দেওয়ার পর পেমেন্ট গেটওয়ে থেকে অর্থ ছাড় দেওয়ার জন্য বাংলাদেশ ব্যাংক নির্দেশনা জারি করেছে। এক্ষেত্রে অনলাইন পেমেন্ট অপেক্ষাকৃত নিরাপদ।