বাংলাদেশে এসে পৌঁছেছে অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট টিম

0
38
বাংলাদেশে এসে পৌঁছেছে অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট টিম
বাংলাদেশে এসে পৌঁছেছে অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট টিম

নানা টালবাহানা আর সব শঙ্কা কাটিয়ে, পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে অবশেষে বাংলাদেশে এসে পৌঁছেছে অস্ট্রেলিয়া জাতীয় ক্রিকেট দল। বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) বিকেল ৪টা ১০ মিনিটে ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পা রাখেন মিচেল স্টার্ক, ম্যাথু ওয়েডরা।বিমানবন্দর থেকে সোজা টিম হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে চলে যাবেন সফরকারীরা। সেখানে তিনদিনের কোয়ারেন্টাইন শেষে অনুশীলনের সুযোগ পাবে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল। তার আগে অবশ্য দুই দফায় করোনাভাইরাস পরীক্ষায় নেগেটিভ হতে হবে।

৩২ সদস্যের দলে নাম নেই স্টিভ স্মিথ, ডেভিড ওয়ার্নারের মতো তারকা ক্রিকেটারের। চোট ও ব্যক্তিগত কারণ মিলিয়ে স্মিথ, ওয়ার্নার, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, মার্নাস লাবুশেন, মার্কাস স্টয়নিস ও প্যাট কামিন্সরা খেলবেন না এই সিরিজে।বাংলাদেশে আসার আগে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে ইনজুরিতে পড়ে ছিটকে গেছেন অস্ট্রেলিয়ার সীমিত ওভারের দলের অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চও।

এই প্রথম বাংলাদেশের সাথে ৫টি টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলবে অস্ট্রেলিয়া।

দুই দলের মুখোমুখি পরিসংখ্যান সমৃদ্ধ নয় মোটেই। সর্বসাকুল্যে তিনটি টেস্ট সিরিজ খেলেছে তারা। দ্বিপাক্ষিক ওয়ানডে সিরিজে সবশেষ মুখোমুখি হয়েছে ২০১১ সালে। টি-টোয়েন্টিতে নিজেদের মধ্যে এখনো কোনো সিরিজ খেলেনি এই দুই দল।

বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া সবশেষ মুখোমুখি হয়েছে ২০১৯ ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে। ২০২০ সালের সূচিতে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ খেলতে বাংলাদেশে আসার কথা ছিল অজিদের। কিন্তু করোনাভাইরাসের কারণে সে সফর বাতিল করে অস্ট্রেলিয়া। বাণিজ্যিক কারণে এর আগে বাংলাদেশের সঙ্গে সিরিজ খেলতে অনাগ্রহ দেখায় তারা। তবুও ২০১৭ সালে একবার টেস্ট সিরিজ খেলতে এ দেশে এসেছিল অস্ট্রেলিয়া। দীর্ঘ ৪ বছর পর আবার বাঘের ডেরায় এল ক্যাঙ্গারুরা।

আগামী ৩ থেকে ৯ আগস্টের মধ্যে মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে পাঁচ ম্যাচের টি টোয়েন্টি সিরিজ। প্রতিটি ম্যাচই শুরু হবে সন্ধ্যা ৬টায়।