বগুড়ায় বাস-সিএনজির মুখোমুখি সংঘর্ষ

0
42
প্রাইভেটকারের মুখোমুখি সংঘর্ষ
প্রাইভেটকারের মুখোমুখি সংঘর্ষ

বাস ও সিএনজিচালিত অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে দুইজন নিহত হয়েছেন। ঘটনাটি ঘটেছে বগুড়ার শেরপুরে। এবং আহত হয়েছেন আরও অন্তত চারজন। তাদের বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এর মধ্যে দুইজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে হাসপাতাল সূত্র জানিয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৮ আগস্ট) দুপুর পৌনে ১২টার দিকে উপজেলার শাহবন্দেগী ইউনিয়নের হামছায়াপুর এলাকার ঢাকা-বগুড়া মহাসড়কে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

দুর্ঘটনায় নিহতদের মধ্যে সিএনজিচালকের পরিচয় মিলেছে। তার নাম আব্দুল বাছেদ (৩৫)। তিনি উপজেলার মির্জাপুর ইউনিয়নের বিরইল গ্রামের শাহার উদ্দিনের ছেলে। নিহত অপরজনের পরিচয় পাওয়া যায়নি।

প্রত্যক্ষদর্শী ও হাসপাতাল সূত্র জানায়, রংপুর থেকে ঢাকাগামী হানিফ পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাস মহাসড়কের হামছায়াপুরে পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে আসা অটোরিকশার সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে সিএনজির চালকসহ ছয়জন গুরুতর আহত হন।

স্থানীয়দের সহযোগিতায় ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা তাদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে যান। তবে হাসপাতালে নেওয়ার পথেই অজ্ঞাতপরিচয় (৩০) এক যাত্রী মারা যান। আর অন্য আহতদের অবস্থার অবনতি হলে তাৎক্ষণিক বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন সিএনজিচালক আব্দুল বাছেদ মারা যান।

জানতে চাইলে শেরপুর হাইওয়ে পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ বানিউল আনাম বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, দুর্ঘটনার পরপরই বাসের চালক ও তার সহকারী পালিয়ে যাওয়ায় তাদের আটক করা যায়নি। তবে দুর্ঘটনাকবলিত বাস ও সিএনজি জব্দ করা হয়েছে। নিহত অজ্ঞাতনামা ব্যক্তির পরিচয় জানার চেষ্টা চলছে। পাশাপাশি নিহতদের মরদেহ বগুড়ায় হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। সেখানে আইনি প্রক্রিয়া শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

এ ঘটনায় মামলার প্রক্রিয়া চলছে বলেও জানান হাইওয়ে পুলিশের এই কর্মকর্তা।