বংশালে রিকশা থেকে পড়ে ইডেন ছাত্রী নিহত 

0
25
বংশালে রিকশা থেকে পড়ে ইডেন ছাত্রী নিহত 
বংশালে রিকশা থেকে পড়ে ইডেন ছাত্রী নিহত 

ঈদের ছুটি শেষে ঢাকা ফিরছিলেন উম্মে সালমা (২৪)। তিনি ইডেন মহিলা কলেজের ছাত্রী। উম্মে সালমার বাড়ি ভোলার চরফ্যাশন উপজেলার আসলামপুর গ্রামে। তার বাবার নাম গোলাম কিবরিয়া। দুই ভাই ও এক বোনের মধ্যে তিনি বড় ছিলেন। তিনি ইডেন মহিলা কলেজ থেকে বাংলা সাহিত্যে স্নাতকোত্তর করেছেন।

বৃহস্পতিবার (২১ জুলাই) ভোর ৪টার দিকে রাজধানীর বংশালে রিকশা থেকে ছিটকে পড়ে ইডেন মহিলা কলেজের ছাত্রী উম্মে সালমা নিহত হন। পরে তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ভোর ৫টার দিকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহত উম্মে সালমার চাচাতো ভাই হাসান বলেন, ঈদের ছুটি শেষে আমি ও আমার চাচাতো বোন ভোলা থেকে লঞ্চে করে ঢাকার সদরঘাটে এসে নামি ভোর সাড়ে ৩টায়। পরে আমরা রিকশায় করে ইডেন মহিলা কলেজের রাজিয়া ছাত্রী নিবাসে যাচ্ছিলাম।

পথে বংশাল এলাকার ফায়ার সার্ভিসের একটু আগে রিকশা জোরে ব্রেক করলে সালমা রিকশা থেকে ছিটকে পড়ে মাথায় আঘাত পায়। পরে ঢাকা মেডিকেলে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক আমার বোনকে মৃত ঘোষণা করেন।

তিনি আরও বলেন, আমার বোন ইডেন কলেজের মাস্টার্সের ছাত্রী ছিলেন। আমাদের বাড়ি ভোলার চরফ্যাশন থানা এলাকায়। তার বাবার নাম মো. গোলাম কিবরিয়া।

এ বিষয়ে ঢামেক হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ পরিদর্শক বাচ্চু মিয়া বলেন, ভোরে একটি মেয়েকে ঢাকা মেডিকেলে আনা হয়েছিল। পরে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহতের চাচাতো ভাই আমাদের জানিয়েছেন, রিকশাযোগে আসার সময় জোরে ব্রেক করলে তিনি ছিটকে পড়ে মাথায় গুরুতর আঘাত পান। হাসপাতালে আনার পর চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

নিহত ওই ছাত্রী ইডেন কলেজে লেখাপড়া করতেন। ঈদের ছুটি শেষে ভোলা থেকে ফিরেছেন। ভোরে সদরঘাট থেকে হলের যাওয়ার পথে এ দুর্ঘটনা ঘটে। মরদেহটি হাসপাতালের জরুরি বিভাগের মর্গে রাখা হয়েছে।