জায়েদ খানকে ‘মৃত’ বলছে ফেসবুক!

0
71
শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক থাকছেন জায়েদ খান
শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক থাকছেন জায়েদ খান

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ব্যাপক আলোচনায় ঢাকাই সিনেমার নায়ক জায়েদ খান। শিল্পী সমিতির এবারের নির্বাচনে ১৩ ভোটে পাস করার পরও সাধারণ সম্পাদকের চেয়ারে বসতে তাকে হাইকোর্ট পর্যন্ত যেতে হয়েছে।

বর্তমানে এ নিয়ে নায়িকা নিপুণের সঙ্গে চলছে তার আইনি লড়াই। আগামী ১৩ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত দুজনকেই আপাতত এই চেয়ারের বাইরে থাকতে হবে। তারপরই বিষয়টির সুরাহা হবে।

এরইমধ্যে আজ বৃহস্পতিবার (১০ ফেব্রুয়ারি) জায়েদ খানের অফিশিয়াল ফেসবুক আইডিতে তাকে রিমেম্বারিং দেখাচ্ছে। সাধারণত কেউ মারা গেলে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ তার অ্যাকাউন্টটি রিমেম্বারিং করে দেয়। কিন্তু জায়েদ খানের ক্ষেত্রে বিষয়টি ঘটেছে উল্টো। বেঁচে থাকতেই এই নায়ককে ‘মৃত’ বলছে ফেসবুক!

ফেসবুক কর্তৃপক্ষ জায়েদ খানের প্রোফাইলে লিখেছে, ‘আমরা আশা করি যারা জায়েদ খানকে ভালোবাসেন, তারা তাকে স্মরণ ও সম্মানিত করার জন্য তার প্রোফাইল পরিদর্শন করে সান্ত্বনা খুঁজে পাবেন।’

গত ২৮ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হয়েছিল বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির ২০২২-২৪ মেয়াদের নির্বাচন। এর প্রাথমিক ফলাফলে ১৩ ভোটে সাধারণ সম্পাদক পদে জয়ী হওয়া জায়েদ খানের প্রার্থিতা বাতিল করে নিপুণকে জয়ী ঘোষণা করা হয়।

গত ৫ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় নির্বাচনের আপিল বোর্ডের চেয়ারম্যান সোহানুর রহমান সোহান এ ঘোষণা দেন। এরপর প্রার্থীতা ফিরে পেতে হাইকোর্টে রিট করেন জায়েদ। এর পরিপ্রেক্ষিতে তার প্রার্থিতা বাতিলের সিদ্ধান্ত স্থগিত করে দেয় হাইকোর্ট। সেই আদেশের বিপরীতে আপিল করেন নিপুণ।

আপিলে জায়েদের প্রার্থিতা বাতিলের সিদ্ধান্ত স্থগিত করার আদেশ স্থগিত করেছেন আপিল বিভাগের চেম্বার আদালত। একইসঙ্গে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক পদে দায়িত্ব পালনের ওপর স্থিতাবস্থা জারি করা হয়েছে।

ফলে আগামী ১৩ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত জায়েদ খান ও নিপুণ আক্তারের কেউই এ পদে দায়িত্ব পালন করতে পারবেন না। ওই দিন আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চে এ বিষয়ে শুনানি হবে। এরপর জানা যাবে, কে বসবেন শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদকের পদে।