কানাডায় ছুরি হামলায় ১০ জন নিহত

0
73
কানাডায় ছুরি হামলায় ১০ জন নিহত
কানাডায় ছুরি হামলায় ১০ জন নিহত

কানাডায় ছুরি হামলায় কমপক্ষে ১০ জন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও অন্তত ১৫ জন। উত্তর আমেরিকার এই দেশটির মধ্যাঞ্চলীয় দু’টি এলাকার অন্তত ১৩টি জায়গায় দুই ব্যক্তি ছুরি নিয়ে হামলা চালালে হতাহতের এই ঘটনা ঘটে।

কানাডার পুলিশের বরাত দিয়ে সোমবার (৫ সেপ্টেম্বর) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম বিবিসি এবং আলজাজিরা।

পুলিশ ইতিমধ্যেই ৩১ বছর বয়সী ডেমিয়েন স্যান্ডারসন এবং ৩০ বছর বয়সী মাইলস স্যান্ডারসন নামে দুই সন্দেহভাজনের নাম ঘোষণা করেছে। তাদেরকে সশস্ত্র, পলাতক এবং বিপজ্জনক বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

রোববার স্থানীয় সময় সাড়ে পাঁচটার দিকে সাসকাচোয়ান প্রদেশের রাজধানী রেজিনা থেকে পুলিশের কাছে প্রথম জরুরি ফোন কলটি আসে। এরপর সাহায্য চেয়ে একের পর এক ফোন আসতে থাকে।

সন্দেহভাজনদের শেষবার রোববার দুপুরের খাবারের সময় রেজিনাতে দেখা গেছে। প্রদেশটির বাসিন্দাদের নিরাপদ জায়গায় আশ্রয় নিতে বলা হয়েছে। প্রদেশটির বিশাল এলাকাজুড়ে ব্যাপক অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

‘নিরাপদ স্থান ছেড়ে কোথাও যাবেন না। কাউকে বাসায় ঢুকতে দেবার আগে সাবধান হন”‘, এমন টুইট করেছে সাসকাচোয়ান রয়্যাল কানাডিয়ান মাউন্টেড পুলিশ।

বিভিন্ন জায়গায় তল্লাশিচৌকি স্থাপন করা হয়েছে। পুলিশ ভ্রমণকারীদের পরিচয়পত্র পরীক্ষা করছে। গাড়ির চালকদের অনুরোধ করা হয়েছে অপরিচিত কাউকে গাড়িতে লিফট না দেবার জন্য।

জেমস স্মিথ ক্রি নেশনে জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে। আদিবাসী সম্প্রদায় প্রধান এলাকাটিতে দুই হাজারের মতো বাসিন্দা রয়েছে।

সাসকাচোয়ান, পার্শ্ববর্তী ম্যানিটোবা এবং আলবার্টা প্রদেশের সমস্ত মোবাইল ফোনে বিপজ্জনক ব্যক্তি বিষয়ক সতর্কতা পাঠানো হয়েছে। এই অঞ্চলটির আয়তন পুরো ইউরোপের অর্ধেকের মতো।

কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো এই হামলাকে ‘ভয়াবহ ও হৃদয়বিদারক’ বলে বর্ণনা করেছেন।

এক টুইট বার্তায় তিনি লিখেছেন, “যারা প্রিয়জনকে হারিয়েছে এবং যারা আহত হয়েছে আমি তাদের কথা ভাবছি।”

রোববার সন্ধ্যায় একটি প্রেস ব্রিফিংয়ে পুলিশ বলেছে যে, আরও আহত ব্যক্তি থাকতে পারে যারা নিজেরাই হাসপাতালে গেছে, তাদের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার আহ্বান জানানো হয়েছে।

সাসকাচোয়ান পুলিশের কমান্ডিং অফিসার রন্ডা ব্ল্যাকমোর বলেছেন হামলার শিকার কিছু ব্যক্তি ওই দুই সন্দেহভাজনের লক্ষ্যবস্তু ছিল। অন্যরা ‘এলোমেলোভাবে আক্রমণের’ শিকার বলে মনে করা হচ্ছে।

‘সন্দেহভাজনরা একটি কালো নিশান রোগ গাড়িতে থাকতে পারে। তাদের থেকে দুরে থাকুন,’ সাবধান করেছেন রন্ডা ব্ল্যাকমোর।

‘তারা সশস্ত্র এবং বিপজ্জনক বলে বিবেচনা করা হচ্ছে… আপনি যদি সন্দেহভাজন ব্যক্তি বা তাদের গাড়ি দেখতে পান, তাহলে তাদের কাছে যাবেন না, অবিলম্বে এলাকা ছেড়ে যান এবং জরুরি নম্বরে কল করুন।’

তিনি বলেছিলেন যে সন্দেহভাজনদের ‘অবস্থান এবং গন্তব্য অজানা’। ‘এ কারণেই আমাদের প্রদেশের সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে।’ যে জায়গায় হামলাগুলো হয়েছে সেগুলো কানাডার খুব শান্তিপূর্ণ গ্রামাঞ্চল। সেখানে এরকম হামলা দেশটির বাসিন্দাদের বিস্মিত করেছে।