করোনা টিকা নিয়ে সতর্কতা, টিকা নেওয়ার আগে-পরে করণীয়

0
115
করোনা টিকা নিয়ে সতর্কতা, টিকা নেওয়ার আগে-পরে করণীয়
করোনা টিকা নিয়ে সতর্কতা, টিকা নেওয়ার আগে-পরে করণীয়

মহামারি করোনা ভাইরাস রোধে সারাবিশ্বে চলছে টিকা দান  কর্মসূচি। পিছিয়ে নেই বাংলাদেশ। এরই মধ্যে কভাক্সের আওতায় দফায় দফায় দেশে এসেছে কয়েকটি কোম্পানির টিকা। তবে এরই মধ্যে টিকার কার্যকারিতা ও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নিয়েও আলোচনা হচ্ছে বিশ্বব্যাপী। আর টিকা নেওয়ার ক্ষেত্রে অনেকে ভুগছেন নানান দ্বিধায়। বিশ্বব্যাপী  টিকা  নিয়ে অনেক বিভ্রান্তিকর তথ্য ছড়িয়ে আছে  সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে। এদিকে করোনা ভাইরাসের থাবা থেকে রক্ষা পেতে টিকা  নেয়ার বিষয়ে জোর দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। তবে করোনা টিকা নেওয়ার আগে ও পরে মেনে চলতে হবে কিছু সতর্কতা।  

টিকা নেওয়ার আগে-পরে যা যা করণীয়ঃ

টিকা নেওয়ার আগে কি করতে হবে? 

১। আরও পাঁচটি টিকার মতই করোনাভাইরাসের টিকা।  তবে টিকা নেওয়ার আগে  চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে পারেন। জেনে নিন টিকা কী ভাবে কাজ করে। টিকা নেওয়ার আগে পর্যাপ্ত বিশ্রাম নিয়ে রাখুন। টিকার ব্যাপারে বিভ্রান্তিকর তথ্যে কান দেবেন না। 

২। প্রয়োজনে চিকিৎসক কিছু রুটিন পরীক্ষার আদেশ দিতে পারেন । ভ্যাকসিন নিতে বের  হওয়ার আগে হালকা খাবার খাবেন। তবে ভ্য়াকসিন নেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ভারি খাবার না খাওয়াই ভালো। 

৩। ভ্যাকসিন নিতে যাওয়ার সময় হালকা ও আরামদায়ক পোষাক পরুন। মাস্কের ব্যবহারও অত্যন্ত জরুরি। টিকা  কেন্দ্রে নূন্যতম নিরাপদ দূরত্ব বজায় রাখাতে হবে। 

৪। দীর্ঘমেয়াদী রোগে যারা ভুগছেন যেমন উচ্চ রক্তচাপ, কিডনি রোগ, ডায়াবেটিস, হার্টে রিং পরেছেন বা বাইপাস করেছেন তারাও নিতে পারবেন। অ্যাজমা রোগী টিকা নিতে পারবেন, এমনকি ক্যানসার রোগী যারা কেমোথেরাপি নিচ্ছেন কিন্তু স্বাভাবিক আছেন তারাও নিতে পারবেন। এসব রোগ থাকার পরও একজন রোগী যদি স্থিতিশীল থাকে তাহলে তার টিকা নিতে বাধা নেই। বিশেষ করে যাদের ‘হেমোফিলিয়া’ বা রক্ত জমাট না বাঁধার সমস্যা আছে, তাদের টিকা নিতে হবে চিকিৎসকের তত্ত্ববধানে।

৫। যারা নিয়মিত কোনো ওষুধ সেবন করছেন, তাদের টিকা নেওয়ার আগে চিকিৎসকের কাছ থেকে জেনে নিতে টিকা কোনো ওষুধের সঙ্গে ক্ষতিকর প্রভাব তৈরি করবে কি না। বিশেষত, কোনো ওষুধ টিকা নেওয়া পর ‘অ্যালার্জিক রিঅ্যাকশন’ তৈরি করার সম্ভাবনা আছে কি না সে ব্যাপারে নিশ্চিত হতে হবে। ওষুধ ছাড়াও কোনো খাবার, ইঞ্জেনশন ইত্যাদিতে ‘অ্যালার্জিক রিঅ্যাকশন’ হওয়ার ঘটনা যাদের ঘটেছে তাদেরকেও বিশেষ সাবধানতা বজায় রাখতে হবে।

৬। টিকা নেওয়ার রেজিস্ট্রেশন যেদিন করবেন সেদিন থেকেই শরীরকে তার জন্য প্রস্তুত করার পদক্ষেপ নিতে হবে। এজন্য প্রথম ধাপ হবে স্বাস্থ্যকর খাদ্যাভ্যাস গড়ে তোলা।  

টিকা নেওয়ার পরে কি করতে হবে?

টিকা দেওয়ার পরঃ

১। যে হাতে টিকা দেওয়া হয়েছে সেখানে ফোলা ভাব থাকলে চিকিৎসকের পরামর্শ গ্রহণ করতে হবে। 

২। জ্বর, ক্লান্তি, মাথা ব্যাথার মত সমস্যা দেখা দিলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে। এগুলি নিয়ে আতঙ্কের কোনও কারণ নেই। কয়েক দিনের মধ্যে এজাতীয় সমস্যা কেটে যাবে বলেও জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।  

৩। টিকা দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই যদি গুরুতর অ্যালার্জি হয় তাহলে টিকাকেন্দ্রেই তাৎক্ষণিত তদারকি করা হয়। কিন্তু পরবর্তীকালে সমস্যা দেখা দিলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।  

৪। টিকা দেওয়ার পর প্রচুর পরিমাণে পানি খাবেন। 

৫। ভ্যাকসিন নেওয়ার আগে বা পরে মাদক জাতীয় দ্রব্য এড়িয়ে চলা উচিৎ। 

৬। টিকা নেওয়ার পর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হলে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে। নিজেরি ইচ্ছা মত ওষুধ না খাওয়া যাবে না।  

করোনার টিকায় শরীরে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াঃ 

যে জায়গায় টিকা দেওয়া হয়েছে সেখানে কিছুটা ব্যথা হতে পারে। জ্বর বা রাতে কাপুনি, বমি বমি ভাব, শরীর ব্যথা। এর বাইরে আসলে বড় কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা যায়নি। অনেকে ভ্যাকসিন নেওয়ার পরে আতঙ্কে বুকব্যথা অনুভব করেন। কিন্তু আতঙ্কিত হওয়ার কোনো কারণ নেই। ছোটখাটো যেসব পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হয়, সেগুলো যেকোনো টিকা নিলেই হয়ে থাকে।

করোনার টিকা নিতে পারবেন না যারাঃ   

বাড়িতে অথবা হাসপাতালে শয্যাশায়ী রোগীরা করোনার টিকা নিতে পারবেন না। আবার যারা করোনায় আক্রান্ত আছেন তারাও আপাতত টিকা নিতে পারবেন না। আইসোলেশন বা কোয়ারেন্টাইনের সময় শেষ হওয়ার পর তারা টিকা নিতে পারবেন।