এষার বিবাহবিচ্ছেদের কারণ কি তার দ্বিতীয় কন্যাসন্তান??

0
4
বিবাহবিচ্ছেদের
এষার বিবাহবিচ্ছেদের কারণ কি তার দ্বিতীয় কন্যাসন্তান??

বেশ কিছু দিন ধরেই আলোচনায় ছিল হেমা মালিনী এবং ধর্মেন্দ্রর বড় মেয়ে এষা দেওলের দাম্পত্যের পতনের বিষয়টি। তবে শেষটা হল মঙ্গলবার বিবাহবিচ্ছেদের মাধ্যমে। ভরত-এশা  যৌথ বিবৃতি দিয়ে তাঁদের বিচ্ছেদের বিষয়টি জানান।

তারা জানান, পারস্পরিক সম্মতিতেই দাম্পত্য সম্পর্কে ইতি টানছেন তাঁরা। তবে বছর দুয়েক আগেই অভিনেত্রী জানিয়েছিলেন, তাঁর ও স্বামী ভরতের সম্পর্কের অবনতির কথা। শুরুটা হয় দ্বিতীয় কন্যা মীরায়ার জন্মের পর থেকেই।

২০২০ সালে ‘আম্মা মিয়া: স্টোরিজ়, অ্যাডভাইস এন্ড রেসিপিজ়’ নামে লিখা তাঁর বইয়ে লেখেন, ‘‘দ্বিতীয়  সন্তানজন্মের অল্প সময়ের মধ্যে আমি লক্ষ করি যে, ভরত আমার সঙ্গে অদ্ভুত আচরণ করছে, প্রায় সারাক্ষণই বিরক্ত।

তাঁর মনে হয়েছিল , আমি ওর প্রতি যথেষ্ট মনোযোগ দিচ্ছি না। জানি, কোনও স্বামীর পক্ষে এই রকম অনুভব করা খুবই স্বাভাবিক। সেই সময়, এক দিকে আমি রাধ্যার স্কুল, অন্য দিকে মীরায়াকে খাওয়ানো— এই সব নিয়েই ব্যস্ত থাকতাম। সঙ্গে ছিল আমার বই লেখা ও আমার প্রযোজনা সংস্থার মিটিং। আমি ধীরে ধীরে নিজের ত্রুটি বুঝতে পারি। এক বার ভরত একটা নতুন ব্রাশ চেয়েছিল, সেটা আমার মাথা থেকেই বেরিয়ে যায়। কখনও আবার ওর জামা ইস্ত্রি করা হয়নি, তো কখনও খাবার না খেয়েই অফিসে চলে গিয়েছে, আমি খেয়ালও করিনি।’’

যদিও এষা নিজেই জানিয়েছেন সম্পর্কের ফাঁকফোকরগুলো খুব তাড়াতাড়ি শুধরে নিয়েছিলেন। তবু ফল মেলেনি। শেষমেশ বিচ্ছেদের পথেই হাঁটলেন তাঁরা।

কানাঘুষো শোনা যাচ্ছে, অভিনেত্রীর স্বামী ভরত নাকি পরকীয়ায় জড়িত। মুম্বই ছেড়ে বেঙ্গালুরুতে থাকছেন প্রেমিকাকে নিয়ে। যদিও এই প্রসঙ্গে এখনও কোনও মন্তব্য করেননি খ্যাতনামী এই হিরে ব্যবসায়ী।

প্রসঙ্গত, ২০১২ সালে বিয়ে করেন এশা ও ভরত। এই দম্পতি দুই মেয়ের বাবা-মাও। অভিনেত্রী ২০১৭ সালে তাঁর প্রথম কন্যা রাধ্যা এবং ২০১৭ সালে দ্বিতীয় কন্যা মিয়ার জন্ম দেন।