ইসরাইলি হামলায় নিহত বেড়ে ১৯০০

0
14
শনিবার
ফিলিস্তিনের জন্য শনিবার রাষ্ট্রীয় শোক পালন করবে বাংলাদেশ

গাজায় ইসরাইলি হামলায় নিহত হয়েছেন অন্তত ১৯০০ মানুষ এবং সাড়ে ৭ হাজারেরও বেশি আহত হয়েছেন বলে জানিয়েছেন গাজা স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, হামলা শুরুর পর ৭ দিনে ইসরাইলি হামলায় নিহত হয়েছে অন্তত ১৯০০ মানুষ। নিহতদের মধ্যে ৬১৪ জন শিশু ও ৩৭০ জন নারী। এ ছাড়া ইসরাইলের ধারাবাহিক হামলায় আহত হয়েছেন আরও অন্তত ৭ হাজার ৬৯৬ জন।

গত ৭ অক্টোবর সকালে ইসরাইলে নজিরবিহীন হামলা শুরু করে ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী সংগঠন হামাস। তারা মাত্র ২০ মিনিটের মধ্যে ইসরাইলের দিকে ৫ হাজার ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়ে। একই সঙ্গে স্থলপথ, জলপথ ও আকাশপথে দেশটিতে ঢুকে পড়েন হামাস যোদ্ধারা। ইসরাইলও এমন পরিস্থিতিতে যুদ্ধ ঘোষণা করে হামাসের বিরুদ্ধে। এর পর থেকেই দফায় দফায় গাজায় বিমান, স্থল এমনকি নৌবাহিনীর জাহাজ থেকে হামলা চালাচ্ছে ইসরাইল।

এদিকে, ইসরাইলি হামলায় গাজার অধিকাংশ স্কুল ও বেশ কয়েকটি হাসপাতাল বিধ্বস্ত হয়ে গেছে। এই অবস্থায় হাসপাতালগুলোর রোগীর সেবা কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে মারাত্মকভাবে। এমনকি নিহতের সংখ্যা এত বেশি যে, হাসপাতালগুলোর মর্গেও জায়গা খালি নেই।

অপরদিকে, হামাসের ঘাঁটি বলে পরিচিত গাজার কেন্দ্র অঞ্চল থেকে সাধারণ নাগরিকদের ২৪ ঘণ্টার মধ্যে উত্তর গাজায় সরে যাওয়ার আল্টিমেটাম দিয়েছে ইসরায়েল। আশঙ্কা করা হচ্ছে, এই আল্টিমেটাম শেষেই ইসরাইল গাজায় স্থল অভিযান শুরু করতে পারে। এরই মধ্যে দেশটি গাজা সীমান্তে বিপুল পরিমাণ ট্যাংক ও সৈন্য জমায়েত করেছে। বিশ্লেষকরা বলছেন, সব আলামত থেকে অনুমান করা যায়, যেকোনো সময়ই গাজায় স্থল অভিযান শুরু করতে পারে ইসরাইল।

খবরঃ দ্যা গার্ডিয়ান।