আজ থেকে অভ্যন্তরীণ বিমান চালু , ১১ আগস্ট থেকে গণপরিবহন

0
44
মহামারি করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে চলমান বিধিনিষেধ আরো পাঁচ দিন তথা আগামী ১০ আগস্ট পর্যন্ত বাড়িয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে সরকার।
মহামারি করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে চলমান বিধিনিষেধ আরো পাঁচ দিন তথা আগামী ১০ আগস্ট পর্যন্ত বাড়িয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে সরকার।

মহামারি  করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে  চলমান বিধিনিষেধ আরো পাঁচ দিন তথা আগামী ১০ আগস্ট পর্যন্ত বাড়িয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে সরকার।

গতকাল বৃহস্পতিবার ( ৫ আগস্ট ) মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে এই প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়। এর আগে গত মঙ্গলবার মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের আয়োজনে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হকের সভাপতিত্বে আন্তঃমন্ত্রণালয় সভায় বিধিনিষেধ বাড়ানোর এ সিদ্ধান্ত হয়। বৈঠক শেষে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী জানান, আগামী ১০ আগস্ট পর্যন্ত চলমান বিধিনিষেধ কার্যকর থাকবে। 

তবে ১১ আগস্ট থেকে বিধিনিষেধে কিছুটা পরিবর্তন আসবে। গণপরিবহন, দোকানপাট, শপিংমল, সরকারি-বেসরকারি অফিস ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান সীমিত পরিসরে খুলবে। তবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধই থাকছে। সরকারের সর্বশেষ সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ৩১ আগস্ট পর্যন্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, করোনাভাইরাস-জনিত রোগ (কোভিড-১৯) সংক্রমণের পরিস্থিতি বিবেচনায় আরোপিত আগের বিধিনিষেধের ধারাবাহিকতায় নতুন দু’টি শর্তে ৫ আগস্ট রাত ১২টা (গতকাল) থেকে ১০ আগস্ট দিবাগত রাত ১২টা পর্যন্ত এই বিধিনিষেধ আরোপের সময়সীমা বর্ধিত করা হলো।

দু’টি শর্তে বলা হয়েছে, শিল্প-কলকারখানা বিধিনিষেধের আওতাবহির্ভূত থাকবে এবং স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে অভ্যন্তরীণ রুটে বিমান চলাচল করবে। এ দিকে গতকাল রেল মন্ত্রণালয় থেকে জানানো হয়, আগামী ১১ আগস্ট থেকে ৩৮ জোড়া আন্তঃনগর ও ১৯ জোড়া মেইল-কমিউটার ট্রেন দিয়ে সীমিত আকারে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ট্রেন চলাচল শুরু হবে। প্রতিটি ট্রেনের টিকিট অনলাইনে বিক্রি করা হবে। নন কম্পিউটারাইজড স্টেশনের টিকিট ওই স্টেশন কাউন্টার থেকে ক্রয় করতে হবে। কিন্তু চলমান লকডাউন আগামী ১০ আগস্টের পর বর্ধিত করা হলে ট্রেন চলাচল বন্ধই থাকবে।

একইভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে অভ্যন্তরীণ রুটে ফ্লাইট পরিচালনার ঘোষণা দিয়েছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স। রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থাটির জনসংযোগ শাখার উপমহাব্যবস্থাপক তাহেরা খন্দকার জানিয়েছেন, আজ শুক্রবার থেকে দেশের সব অভ্যন্তরীণ গন্তব্যে তাদের ফ্লাইট চলবে। অন্য দিকে বেসরকারি দুই এয়ারলাইন্স ইউএস-বাংলা ও নভোএয়ারও আজ থেকে অভ্যন্তরীণ রুটে তাদের ফ্লাইট পরিচালনার কথা জানিয়েছে।

বেসরকারি বিমান সংস্থা ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের জেনারেল ম্যানেজার (জনসংযোগ) মো: কামরুল ইসলাম নয়া দিগন্তকে বলেন, সিভিল অ্যাভিয়েশন থেকে অভ্যন্তরীণ রুটে ফ্লাইট চালানোর অনুমতি পাওয়া গেছে। সেই অনুযায়ী আগামীকাল ৬ আগস্ট (আজ শুক্রবার) সকাল ৬টা থেকে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স ঢাকা-চট্টগ্রাম-ঢাকা, কক্সবাজার, সৈয়দপুর, যশোর, সিলেট, বরিশাল ও রাজশাহীতে ফ্লাইট পরিচালনার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। সকাল থেকেই টিকিট বিক্রির কার্যক্রমও শুরু হয়ে গেছে। অভ্যন্তরীণ রুটের টিকিট রিজার্ভেশনের জন্য ০১৭৭৭৭৭৭৮০০-৬ অথবা ১৩৬০৫ নম্বরে সবাইকে যোগাযোগ করার জন্য তার পাঠানো বিজ্ঞপ্তিতে অনুরোধ জানানো হয়েছে।